ইটনায় হাওরে বোরা ধান কেটে কৃষক হাসি মুখে ঘরে তুলছে – bnewsbd.com

সারাদেশ

নিজস্ব প্রতিনিধি, বিনিউজবিডি.ডটকম :

 ইটনা (কিশোরগঞ্জ) সংবাদদাতা : যুগ যুগ ধরে বাঙালীর ঘরে ঘরে প্রচলিত পহেলা বৈশাখ বাংলা নবর্বষ বরণ্যের নানা উৎসবের মধ্যে যুগ হত মাঠে মাঠে কৃষানের সোনালী বোর ধান কাটা আর নবান্নের মহা উৎসব। নববর্ষের নবান্নে ঘরে উঠতো কৃষান-কৃষানীর লক্ষীর ভান্ডার । বাংলাদেশে বিরাজমান মাহামারি করোনার কারণে সকল উৎসব যেন গা-ডাকা দিয়েছে তবুও বেঁেচ থাকার অবলম্বন কৃষকের ক্ষেতের ধান যা না কাটলে উপায় নেয়। চলমান লক ডাউনে যানযাবন বন্ধ থাকায় শ্রমিক না পেয়ে ধান কাটা নিয়ে মাহা সংকট্ েরয়েছে কৃষকরা।

বিভিন্ন হাওরে পাকা ধান সময় মত কাটতে না পারলে শীলা বৃষ্টি ও ঝড়ে নষ্ট হওয়ার আশংকায় কৃষক ভিতির মধ্যে রয়েছে। অল্প সংখ্যক শ্রমিক দিয়ে অনেকে নিজেরাই যার যার ধান কেটে বাড়ীতে আনছে । ইটনা উপজেলার বিভিন্ন হাওরে পাকা সোনালী রঙের বোর ধান কেটে এনে মাড়াইয়ে ব্যস্ত রয়েছে এলাকার কৃষক- কৃষানীরা। নতুন ধান ঘরে তুলতে উৎসব মুখর প্রতিটি হিন্দু মুসলিম পরিবারের বাড়ী নামায় খলায় ও উঠানে মুখরিত নতুন ধানের মৌ মৌ গন্ধে। কৃষক কৃষানীরা কুলা হাতে নিয়ে নতুন ধান বাতাশে উড়িয়ে পরিষ্কার করে তখন দেখতে ঝকঝক করে। কৃষকের ঘরে বোর ধান তুলা মানেই কৃষকের ঘরে হাসি খুশির শান্তি পরশ নেমে আসা। সবার আগে নতুন ধানের চালে বিভিন্ন জাতের  পিঠা ক্ষির, পায়েশ, ইত্যাদি মসজিদের মুসলিদের কে খাওয়ানো আর মন্দিরে ঠাকুর দেবতার উদ্দেশ্যে ভোগ পরিবেশনের মাধ্যমে অন্য গ্রহণ ছিল বাঙালী হিন্দু মুসলিম কৃষান পরিবার গুলির আবহবান চিরায়িত প্রথা যা এখন বিলুপ্তি প্রায়। বর্তমানে কৃষক নতুন ধান প্রতি মন ৮৫০ টাকা ধরে বিক্রি করে ভেজায় খুশি। ১ই মে রোজ শনিবার দুপুর বেলায় কড়া রৌদ্রের মধ্যে ইটনা সদর এলাকার কৃষক কৃষানীদের বিভিন্ন ধানের খলায় গিয়ে দেখা যায় কেহ ধান কেটে এনে মিশিন দিয়ে উন্নত জাতের ধান মাড়াই করছে কেহ ধানের খলায় রৌদ্রে শুকাচ্ছে আবার কেহ কেহ ধানের গিলি দিচ্ছে। কৃষক কৃষানীদেরকে জিজ্ঞাসা বাদ করলে বিআর-৫৮, বিআর-২৯ এসব উন্নত জাতের ধান সহ পুলাউ, পায়েশ ও পিঠা খাওয়ার জন্য দেশীয় রাতা ও লাকাই এসব জাতের ধান চাষাবাদ করবেন বলে আমাদের এই প্রতিনিধিকে জানান। ইটনা উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, এবারের লক্ষ্য মাত্রা ২৬,৩৪৫ হেক্টর জমি উৎপাদন ফসল ১,০৮,০০০ মেট্রিকটন মোট আক্রান্ত ৬,৩০০ হেক্টর জমি। পুরোপুরি নষ্ট ৫০০ হেক্টর জমি, আংশিক পুরোপুরি ৮৭০দ্ধ৫০০=১৩৭০ হেক্টর জমি। উৎপাদিত ফসল ৫,৬০০ মেট্রিকটন।

তারিখ: ০২/০৫/২০২১ইং
প্রেরক
মোঃ শাহেদ আলী (ইটনা প্রতিনিধি)
জেলা কিশোরগঞ্জ।

বিনিউজবিডি.ডটকম

আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার দৃঢ় প্রত্যয়ে সংবাদ পরিবেশনে দৃঢ় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ নিয়ে “বিনিউজবিডি.ডটকম” বাংলাদেশের প্রতিটি বিভাগ, জেলা, উপজেলা, গ্রামে-গঞ্জে ঘটে যাওয়া দৈনন্দিন ঘটনাবলী যা মানুষের দৃষ্টি ও উপলব্ধিতে নাড়া দেয় এরূপ ঘটনা যেমন, শিক্ষা,স্বাস্থ্য, পরিবেশ, সামাজিক উন্নয়ন, অপরাধ, দুর্ঘটনা ও অন্যান্য যে কোন আলোচিত বিষয়ের দৃষ্টি নন্দন তথ্য চিত্রসহ সংবাদ পাঠিয়ে সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে আত্ম প্রকাশ করুন।

প্রতি মুহুর্তের খবর মুহুর্তেই পাঠকের মাঝে পৌছে দেয়ার লক্ষ্য কাজ করে যাচ্ছে একঝাঁক সাহসী তরুণ সংবাদ কর্মী। এরই ধারাবাহিকতায় স্বল্প সময়ের মধ্যে বাংলাদেশ সহ দেশের বাহিরে বিভিন্ন দেশে সংবাদদাতা নিয়োগ দেয়া হচ্ছে।

বিদেশের মাটিতে অবস্থানরত লেখা-লেখিতে আগ্রহী যে কোনো বাংলাদেশীও প্রবাসী নাগরিক “বিনিউজবিডি.ডটকম” এর সংবাদদাতা/প্রতিনিধি হিসেবে আবেদন করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *