ভারতের মহারাষ্ট্রে ভবন ধসে নিহত ৭ – bnewsbd.com

আন্তর্জাতিক

নিজস্ব প্রতিনিধি, বিনিউজবিডি.ডটকম :

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের মহারাষ্ট্রের থানেতে একটি ভবন ধসে সাতজন নিহত হয়েছে। ধসে পড়া ভবনের ভেতর এখনও অনেকেই আটকে আছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

 

শুক্রবার (২৯শে মে) রাত সাড়ে ৯টা নাগাদ থানের উল্লাসনগরে নেহরু চকে অবস্থিত একটি পাঁচতলা বাড়ির স্ল্যাব আচমকাই ভেঙে নিচ তলায় এসে পড়ে। এতে বেশ কয়েকজনের মৃত্যু হয় এবং আরও কয়েকজন ভবনের ভেতর আটকা পড়েন বলে হিন্দুস্থান টাইমসের খবরে বলা হয়েছে।

অপরদিকে এনডিটিভি জানায়, গতকাল রাতেই ভবনের ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে ছয়টি মৃতদেহ উদ্ধার করেছে উদ্ধার কর্মীরা। পরে মধ্যরাতে আরও একটি মৃতদেহ উদ্ধারের কথা জানান তারা।

থানে পৌর কর্পোরেশনের আঞ্চলিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সেলের প্রধান সন্তোষ কদম বলেন, ধ্বংসস্তূপ থেকে তিন নারী, তিন পুরুষ এবং এক কিশোরের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃতদেহগুলো ভবনে বসবাস করা দুটি পরিবারের। ২৬ বছরের পুরাতন ভবনটিতে ২৯টি ফ্ল্যাট ছিল।

এদিকে গতকাল রাতে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন জেলা মন্ত্রী একান্ত শিন্ডে। তিনি জানান, ওই এলাকায় এটা দ্বিতীয় ঘটনা। ১৯৯৪-৯৫ সালে এই ধরনের বাড়ি ভেঙে ফেলা হয়। কিন্তু কিছু বাড়ি এখনও রয়েছে।

এগুলো সে সময় কোনো অনুমতি ছাড়াই তৈরি হয়েছিলো। আগামী দিনের কথা বিবেচনা করে এ ধরনের বাড়িগুলো দ্রুতই ভেঙে ফেলা হবে।

বিনিউজবিডি.ডটকম

আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার দৃঢ় প্রত্যয়ে সংবাদ পরিবেশনে দৃঢ় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ নিয়ে “বিনিউজবিডি.ডটকম” বাংলাদেশের প্রতিটি বিভাগ, জেলা, উপজেলা, গ্রামে-গঞ্জে ঘটে যাওয়া দৈনন্দিন ঘটনাবলী যা মানুষের দৃষ্টি ও উপলব্ধিতে নাড়া দেয় এরূপ ঘটনা যেমন, শিক্ষা,স্বাস্থ্য, পরিবেশ, সামাজিক উন্নয়ন, অপরাধ, দুর্ঘটনা ও অন্যান্য যে কোন আলোচিত বিষয়ের দৃষ্টি নন্দন তথ্য চিত্রসহ সংবাদ পাঠিয়ে সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে আত্ম প্রকাশ করুন।

প্রতি মুহুর্তের খবর মুহুর্তেই পাঠকের মাঝে পৌছে দেয়ার লক্ষ্য কাজ করে যাচ্ছে একঝাঁক সাহসী তরুণ সংবাদ কর্মী। এরই ধারাবাহিকতায় স্বল্প সময়ের মধ্যে বাংলাদেশ সহ দেশের বাহিরে বিভিন্ন দেশে সংবাদদাতা নিয়োগ দেয়া হচ্ছে।

বিদেশের মাটিতে অবস্থানরত লেখা-লেখিতে আগ্রহী যে কোনো বাংলাদেশীও প্রবাসী নাগরিক “বিনিউজবিডি.ডটকম” এর সংবাদদাতা/প্রতিনিধি হিসেবে আবেদন করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *