বিশ্ব পরিবেশ দিবস আজ – bnewsbd.com

জাতীয়

নিজস্ব প্রতিনিধি, বিনিউজবিডি.ডটকম :

epsoon tv 1

আজ ৫ই জুন,বিশ্ব পরিবেশ দিবস।

সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে ১৯৭২ সালের ৫-১৬জুন ইতিহাসের প্রথম পরিবেশ-বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলন হয়েছিলো। এইবারেও দিবসটি বিভিন্ন আড়ম্বরের মধ্যে দিয়ে পালিত হচ্ছে। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয়ঃ-‘পরিবেশ পুনরুদ্ধার, হোক সবার অঙ্গীকার’। এটিকে কেন্দ্র করে বিশ্বব্যাপী পালিত হচ্ছে এ দিবস। বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষে দেওয়া বাণীতে করোনাভাইরাসের এই মহামারীর মধ্যে সবুজ পৃথিবী গড়ার ওপর জোর দিয়েছেন আমাদের বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা।

বন-জঙ্গল ধ্বংস করা, বন্যপ্রাণী নিধন, অধিক হারে বৃক্ষ নিধন,পানিদুষণ, মাটিদুষণ এবং বায়ুদূষণসহ অন্যান্য দূষণ বৃদ্ধির প্রভাবে জলবায়ু-পরিবর্তনের ফলে আজ মানবজাতির অস্তিত্ব হুমকির মুখে পড়েছে। এছাড়াও বন ধ্বংস করায় বন্য প্রাণী অত্যধিক হারে হ্রাস পাচ্ছে। এতে পরিবেশের উপর বিরূপ প্রভাব পড়ছে।

জাতিসংঘের তথ্য মতে, প্রকৃতি ধ্বংসের বর্তমান ধারা চলতে থাকলে আগামী ১০ বছরের মধ্যে বিশ্বব্যাপী প্রায় ১০ লাখ প্রজাতি বিলুপ্ত হতে পারে। দেশের প্রতিটি নাগরিকেরই নিজ দায়িত্বে পরিবেশ রক্ষার্থে এগিয়ে আসা উচিত। নতুন করে বনায়ন ও প্রাকৃতিক সম্পদ রক্ষায় সবাইকে এক জোট হয়ে কাজ করতে হবে।

বন্য প্রাণী রক্ষা করতে হবে,তবেই ইকো সিস্টেম পুনরুদ্ধার করা সম্ভব হবে।প্রতি বছর পরিবেশ দূষণের ফলে বহু মানুষ ও প্রাণী জীবন হারাচ্ছে। অপরিকল্পিত নগরায়ন ও নির্বিচারে পরিবেশের ক্ষতি করায় এর চরম মূল্য দিতে হচ্ছে প্রতিটি জীবন কেই । আমরা একই সাথে সবুজ শ্যামল পরিবেশ চাই, আবার একই সাথে পরিবেশ দূষণে মেতে উঠি। নদী দূষণ করে,ভরাট করে ইচ্ছামত নগরায়ন করছি। অথচ এই নদী নালা খাল বিল কত যে অবদান রাখছে পরিবেশের জন্য তা আমরা ভুলে যাচ্ছি।

নিজেদের এই অজ্ঞতা এবং স্বেচ্ছাচারিতার ফলে বাতাস, পানি, মাটি সব দূষিত করে ফেলেছি আমরা, আর পরবর্তী প্রজন্মের জন্য একটি হুমকিময় ভবিষ্যত রেখে যাচ্ছি। নিজেদের ক্ষতি জেনেও বন ধ্বংস করছি, প্রাণী ও পানির সম্পদ নষ্ট করছি খেয়ালখুশিমত। পৃথিবী হারাচ্ছে তার বায়ুমণ্ডলের ভারসাম্য। ওজন স্তর ক্ষয় হচ্ছে। যার সরাসরি প্রভাব পড়ছে সকল জীবের প্রতি।

পরিবেশ ও প্রাণীসম্পদ  রক্ষায় ভেটেরিনারি এর সাথে সংশ্লিষ্ট সকলেই অনেক ভূমিকা রাখছে। প্রাণী স্বাস্থ্য সুরক্ষা এবং পরিবেশ ও জনস্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে আমাদের দেশের ভেটেরিনারিয়ানরা সর্বাগ্রে কাজ করছে।

বাংলাদেশে থেমে নেই প্রাণিসম্পদ নিয়ে গবেষণা। প্রাণী চিকিৎসক ও গবেষকরা পরিবেশের বৈষম্যের কথা বিবেচনায় বিভিন্ন গবেষণা, বিভিন্ন প্রাণীর নতুন জাত উদ্ভাবন ও জাত উন্নয়ন, উৎপাদন বৃদ্ধি যেমন- দুগ্ধ উৎপাদন, ডিম উৎপাদনে বিশেষ ভূমিকা রাখছেন। বাংলাদেশের মানুষ কৃষির উপর অনেকাংশে নির্ভর করে।  কৃষি বাঙালি জাতির সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। কিন্তু পরিবেশের ক্ষতির ফলে এই মূল চালিকা শক্তি দুর্বল হয়ে যাচ্ছে।

কৃষিপ্রধান বাংলাদেশের প্রাণিসম্পদের সর্বোপরি পরিচর্যার জন্য ভেটেরিনারির সাথে সংশ্লিষ্ট সকলের গুরুত্ব অপরিসীম। কৃষি খাত ব্যাপকভাবে প্রাণিসম্পদের উপর নির্ভরশীল। প্রাণিসম্পদের উন্নয়ন ছাড়া কৃষিকে এগিয়ে নেওয়া সম্ভব না। তাই প্রাণি বাচলে কৃষি বাচবে, কৃষি বাচলে পরিবেশ বাচবে।

একটা বাস্তুতন্ত্রের প্রতিটি ধাপেই উদ্ভিদ ও প্রাণীর নির্ভরশীলতা লক্ষ্যনীয়। অর্থাৎ উদ্ভিদ,প্রাণী,মানুষ সহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক উপাদান একটি পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। তাই আসুন, সবাই নিজেদের স্বার্থে, সকল প্রাণীর স্বার্থে,ভবিষ্যত প্রজন্মের স্বার্থে, একটি বিশুদ্ধ পরিবেশ গড়ে তুলি।

মনে রাখবেন, পৃথিবী একটাই, আর তার বিশুদ্ধতা বজায় রাখার দায়িত্ব আমাদেরই।

আফসানা মিমি লাবনী।

প্রাণীসম্পদ বিজ্ঞান ও ভেটেরিনারি মেডিসিন বিভাগ, ১ম বর্ষ।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়,গোপালগঞ্জ-৮১০০

epsoon tv 1

বিনিউজবিডি.ডটকম

আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার দৃঢ় প্রত্যয়ে সংবাদ পরিবেশনে দৃঢ় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ নিয়ে “বিনিউজবিডি.ডটকম” বাংলাদেশের প্রতিটি বিভাগ, জেলা, উপজেলা, গ্রামে-গঞ্জে ঘটে যাওয়া দৈনন্দিন ঘটনাবলী যা মানুষের দৃষ্টি ও উপলব্ধিতে নাড়া দেয় এরূপ ঘটনা যেমন, শিক্ষা,স্বাস্থ্য, পরিবেশ, সামাজিক উন্নয়ন, অপরাধ, দুর্ঘটনা ও অন্যান্য যে কোন আলোচিত বিষয়ের দৃষ্টি নন্দন তথ্য চিত্রসহ সংবাদ পাঠিয়ে সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে আত্ম প্রকাশ করুন।

প্রতি মুহুর্তের খবর মুহুর্তেই পাঠকের মাঝে পৌছে দেয়ার লক্ষ্য কাজ করে যাচ্ছে একঝাঁক সাহসী তরুণ সংবাদ কর্মী। এরই ধারাবাহিকতায় স্বল্প সময়ের মধ্যে বাংলাদেশ সহ দেশের বাহিরে বিভিন্ন দেশে সংবাদদাতা নিয়োগ দেয়া হচ্ছে।

বিদেশের মাটিতে অবস্থানরত লেখা-লেখিতে আগ্রহী যে কোনো বাংলাদেশীও প্রবাসী নাগরিক “বিনিউজবিডি.ডটকম” এর সংবাদদাতা/প্রতিনিধি হিসেবে আবেদন করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *