মিরপুরে ‘কৃষকের বাজার’ টাটকা সবজির সমারোহ – bnewsbd.com

জাতীয়

নিজস্ব প্রতিনিধি, বিনিউজবিডি.ডটকম :

স্টাফ রিপোর্টার :  তরতাজা সবুজ সবজি। দেখলেই চোখ জুড়িয়ে যাওয়ার মতো। আর একজন মানুষকে সুস্থ্য ও সুন্দর থাকতে হলে সবুজ সবজির জুরি নেই। সবুজ সবজি, শাক-পাতা খেয়ে খুব সহজেই তারুণ্য ধরে রাখা সম্ভব। তবে সেটি হতে হবে নিরাপদ ও স্বাস্থ্যকর। এমনই এক বাজার বসছে রাজধানীর মিরপুর এলাকায়। কৃষক তার উৎপাদিত পণ্যটি সরাসরি ভোক্তাদের হাতে তুলে দিতে ‘কৃষকের বাজার’ নামে এ বাজার তৈরিতে সহায়তা করেছে জাতিসংঘের ফুড এন্ড এগ্রিকালচার অর্গানাইজেশন, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন এবং ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্ট। মিরপুরের ৬ নং ওয়ার্ডের ‘ট’ ব্লকে যৌথ উদ্যোগে তৈরি করা এই কৃষকের বাজারের শুক্রবার উদ্বোধন করা হয়েছে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের যাচাইকৃত নিরাপদ সবজি চাষিরাই এ বাজারে তাদের পণ্য বিক্রি করবেন। তবে স্থানীয় বাজারের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে দর পুনর্র্নিধারণের জন্য চাষিদের অনুরোধ জানিয়েছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

আয়োজকরা জানিয়েছেন, কৃষি মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় কৃষকরা জৈব সার ও জৈব বালাইনাশক ব্যবহারের মাধ্যমে নিরাপদ সবজি উৎপাদন করছেন। কিন্তু বর্তমান বাজার ব্যবস্থার ফলে তারা সঠিক মূল্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। অন্যদিকে ক্রেতারাও সাশ্রয়ী মূল্যে নিরাপদ সবজি পাচ্ছেন না। এ অবস্থায় ভোক্তার জন্য স্বাস্থ্যকর ও নিরাপদ সবজি সহজলভ্য করা, সেই সাথে কৃষকের জন্য উৎপাদিত পণ্যের সঠিক মূল্য প্রাপ্তি নিশ্চিত করতেই এই বাজার সৃষ্টি করা হয়েছে। প্রতি শুক্রবার সকাল ৭টা থেকে রাজধানীর নিকটবর্তী সাভারের বিরুলিয়া থেকে কৃষকেরা তাদের উৎপাদিত নিরাপদ সবজি-ফল এ বাজারে বিক্রি করবেন।

 উদ্বোধনী দিনে সাভারের বিরুলিয়া থেকে আটজন কৃষক তাদের উৎপাদিত নিরাপদ বিভিন্ন সবজি, যেমন- ধুন্দল, চিচিঙ্গা, শসা, লাউশাক, পুঁই শাক, কলমি শাক ইত্যাদি নিয়ে আসেন। কৃষকের বাজার উদ্বোধন কার্যক্রমের প্রধান অতিথি ও উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৬ নং ওয়ার্ডের সম্মানিত কাউন্সিলর মো: তাইজুল ইসলাম চৌধুরী (বাপ্পি)। তিনি বলেন, বিষমুক্ত নিরাপদ সবজির দাম একটু বেশি। কিন্তু কেমিক্যাল দেয়া সবজি খেলে কিন্তু চিকিৎসার জন্য অধিক টাকা ব্যয় করতে হবে। তাই নিরাপদ সবজি ক্রয়ের দিকেই আমাদের মনোযোগ দিতে হবে।

উদ্বোধনের পর বাজারটিতে ক্রেতার যেন ঢল নেমেছে। থরে থরে সাজানো এই সবজি যেন সবুজের সমারোহ। বাজার ঘুরে দেখা যায়, নিরাপদ খাদ্যে ভোক্তাদের ব্যাপক উৎসাহ রয়েছে। মধ্যস্বত্বভোগী তৎপরতা না থাকায় খুশি বিক্রেতারাও। কোনো হাত না ঘুরে মাঠ থেকে সরাসরি ভোক্তার হাতে সবজি তুলে দিয়ে ন্যায্যমূল্য পাচ্ছেন বলেও জানিয়েছেন তারা।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত কৃষি কর্মকর্তা মরিয়ম খাতুন বলেন, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে নিরাপদ সবজি চাষীদের আমরা নিয়মিত প্রশিক্ষণ দেয়া, জৈব সার ও জৈব বালাইনাশক সরবরাহ করাসহ বিভিন্ন ধরণের সহায়তা প্রদান করে থাকি। নিরাপদ সবজি চাষে কৃষকদের কষ্ট এবং ব্যয় উভয়ই কিছুটা বেশি হয় বলে দাম একটু বেশি। কিন্তু এ সবজিগুলো নিরাপদ ও স্বাস্থ্যের জন্য ভালো।

কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো ফজলুর রহমান বলেন, কৃষকের বাজার স্থাপনের মাধ্যমে একদিকে যেমন ভোক্তার জন্য নিরাপদ খাদ্যের সহজলভ্যতা নিশ্চিত করা সম্ভব, অন্যদিকে কৃষকের জন্যও সঠিক মূল্য প্রাপ্তি নিশ্চিত করা সম্ভব। তিনি আরও বলেন, কৃষি মন্ত্রণালয়ের কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের উদ্যোগে সেচ ভবনে কৃষকের বাজারের যাত্রা প্রথম শুরু হয়। মিরপুর ৬ নং ওয়ার্ডের এই কৃষকের বাজারটি এক্ষেত্রে একটি নতুন সংযোজন।

জাতিসংঘের ফুড এন্ড এগ্রিকালচার অর্গানাইজেশনের ন্যাশনাল প্রোজেক্ট কো-অর্ডিনেটর জয়নাল আবেদীন বলেন, জাতিসংঘের ফুড এন্ড এগ্রিকালচার অর্গানাইজেশন সকলের জন্য নিরাপদ ও স্বাস্থ্যকর খাদ্যের সহজলভ্যতা নিশ্চিতে বিশ্বব্যাপী কাজ করছে। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৬ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর অফিস ও ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্ট এর পক্ষ থেকে আমরা পরীক্ষামূলকভাবে কৃষকের বাজারটি স্থাপন করেছি। এ কার্যক্রমটি সফল হলে আমরা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের অন্যান্য এলাকায় এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনেও এটি বাস্তবায়ন করব।

ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্ট এর পরিচালক গাউস পিয়ারী বলেন, কোভিড সংক্রমণের পর স্বাস্থ্যকর খাদ্য গ্রহণের প্রয়োজনীয়তা আমরা আরো বেশি করে অনুভব করেছি। কৃষকের বাজার আমাদের নিরাপদ ও স্বাস্থ্যকর খাদ্য প্রাপ্তির একটি মাধ্যম। ঢাকার প্রতিটি ওয়ার্ডে একটি করে কৃষকের বাজার স্থাপন করা হলে এলাকাবাসী নিঃসন্দেহে উপকৃত হবেন।

বিনিউজবিডি.ডটকম

আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার দৃঢ় প্রত্যয়ে সংবাদ পরিবেশনে দৃঢ় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ নিয়ে “বিনিউজবিডি.ডটকম” বাংলাদেশের প্রতিটি বিভাগ, জেলা, উপজেলা, গ্রামে-গঞ্জে ঘটে যাওয়া দৈনন্দিন ঘটনাবলী যা মানুষের দৃষ্টি ও উপলব্ধিতে নাড়া দেয় এরূপ ঘটনা যেমন, শিক্ষা,স্বাস্থ্য, পরিবেশ, সামাজিক উন্নয়ন, অপরাধ, দুর্ঘটনা ও অন্যান্য যে কোন আলোচিত বিষয়ের দৃষ্টি নন্দন তথ্য চিত্রসহ সংবাদ পাঠিয়ে সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে আত্ম প্রকাশ করুন।

প্রতি মুহুর্তের খবর মুহুর্তেই পাঠকের মাঝে পৌছে দেয়ার লক্ষ্য কাজ করে যাচ্ছে একঝাঁক সাহসী তরুণ সংবাদ কর্মী। এরই ধারাবাহিকতায় স্বল্প সময়ের মধ্যে বাংলাদেশ সহ দেশের বাহিরে বিভিন্ন দেশে সংবাদদাতা নিয়োগ দেয়া হচ্ছে।

বিদেশের মাটিতে অবস্থানরত লেখা-লেখিতে আগ্রহী যে কোনো বাংলাদেশীও প্রবাসী নাগরিক “বিনিউজবিডি.ডটকম” এর সংবাদদাতা/প্রতিনিধি হিসেবে আবেদন করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *