অজুহাতে চালের দাম বাড়ছে – bnewsbd.com

বিজ্ঞান প্রযুক্তি

নিজস্ব প্রতিনিধি, বিনিউজবিডি.ডটকম :

চলমান কঠোর বিধিনিষেধে ত্রাণ বিতরণের অজুহাতে এবার বাড়ল মোটা চালের দাম। রাজধানীর পাইকারি বাজারে ৫০ কেজির বস্তায় ১০০ টাকা ও খুচরা বাজারে কেজিপ্রতি সমহারে বেড়েছে। এতে নিম্ন আয়ের মানুষের কষ্ট আরও বাড়ল। এ অবস্থায় ট্রাক সেলের পরিধি ও সরবরাহ বাড়াতে চাল আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। 
তবে শুধু মোটা চাল নয়, মিনিকেট, নাজিরশাইলসহ সরু চালের দামও বস্তাপ্রতি ১০০ থেকে ৩০০ টাকা বেড়েছে।

চলমান কঠোর বিধিনিষেধে বিভিন্ন শ্রেণি–পেশার মানুষের আয়–রোজগার আশঙ্কাজনকভাবে কমেছে; বিশেষ করে নিম্ন আয়ের মানুষের জীবন চলছে কষ্টে। রাজধানীতে টিসিবির পণ্য কিনতে এমনিতে ট্রাকের সামনে মানুষের লাইন দীর্ঘ হচ্ছে। বাজারে মোটা চালের দাম বেড়ে যাওয়ায় তাদের ভোগান্তি আরও বাড়বে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

রাজধানীর পুরান ঢাকার বাবুবাজার ও বাদামতলী এলাকার পাইকারি চাল ব্যবসায়ীরা বলছেন, গত সপ্তাহে ৫০ কেজি ওজনের এক বস্তা চালের দাম ছিল ২ হাজার ৩০০ টাকা। এ হিসাবে প্রতি কেজির দাম ৪৬ টাকা। গত শুক্রবার একই চাল ২ হাজার ৪০০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। এই হিসাবে প্রতি কেজির দাম পড়ে ৪৮ টাকা। এতে কেজিতে ২ টাকা বেড়েছে। এক বস্তা মিনিকেট চালের দাম ছিল ২ হাজার ৭৫০ টাকা। শুক্রবার তা ২ হাজার ৮৫০ টাকায় বিক্রি হয়। নাজিরশাইলের দাম ছিল ২ হাজার ৬০০ টাকা। বর্তমানে তা ২ হাজার ৯০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

বাবুবাজারের মেসার্স নিউ মুক্তা রাইস এজেন্সির মালিক দ্বীন মোহাম্মদ স্বপন বলেন, এ বছর মোটা ধানের আবাদ কম হয়েছে। সরকার মিলমালিকদের কাছ থেকে মোটা চাল নেওয়ায় বাজারে এই চালের সরবরাহ কম। আবার চলমান বিধিনিষেধে বিভিন্ন সংস্থা চাল বিতরণ করছে। ফলে বাজারে মোটা চালের পাশাপাশি সরু চালের দামও বেড়েছে।
রাজধানীর পূর্ব রামপুরার বনশ্রী এলাকার মেসার্স শিফা রাইস এজেন্সির বিক্রয় প্রতিনিধি আসাদুল ইসলাম বলেন, কয়েক দিন আগে তাঁরা প্রতি ৫০ কেজি ওজনের বিআর–২৮ চাল বিক্রি করেছেন ২ হাজার ৪০০ টাকায়। শুক্রবার থেকে তা ২ হাজার ৫৫০ টাকায় বিক্রি করছেন। মোকামে দাম বাড়ায় তাঁদের পর্যায়ে বেড়েছে।

রাজধানীর সেগুনবাগিচা বাজারের মেসার্স সোনালি রাইস এজেন্সির মালিক নুরুল ইসলাম জানান, তিন–চার দিন আগেও প্রতি কেজি বিআর–২৮ চালের (লতা নামে পরিচিত) দাম ছিল ৫০ টাকা। শুক্রবার তা ৫২ টাকায় বিক্রি করেছেন। টিসিবির হিসাবমতে, এক সপ্তাহ আগে মোটা চালের দাম ছিল ৪৪–৪৮ টাকা। বর্তমানে তা ৪৬–৫০ এবং মাঝারি মানের ৫০–৫৪ টাকার চাল ৫২–৫৬ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

চালের দাম বৃদ্ধি এভাবে চলতে থাকলে মানুষের ভোগান্তি বাড়বে বলে মনে করছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংগঠন কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব)। সংগঠনের সভাপতি গোলাম রহমান বলেন, চলমান লকডাউনে চালের দাম বাড়ার বিষয়টি বেশি দিন স্থায়ী রাখা যাবে না। কেউ কারসাজির মাধ্যমে দাম বাড়াচ্ছে কি না, সরকারকে তা বের করে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে হবে।

জানতে চাইলে খাদ্যসচিব নাজমানারা খানুম আজকের পত্রিকাকে বলেন, চালের দাম বাড়ায় ব্যবসায়ীদের অজুহাতের শেষ নেই। রাজধানীতে ট্রাক সেলের সংখ্যা আরও ২০টি বাড়ানো হচ্ছে। এখন ১০টি ট্রাক রয়েছে। প্রতি ট্রাকে তাঁরা দৈনিক তিন টন চাল দিচ্ছেন। সারা দেশে ৭৭৬টি ট্রাকে চাল বিক্রি হচ্ছে। ঈদ পর্যন্ত ট্রাক সেল অব্যাহত থাকবে।

খাদ্যসচিব আরও বলেন, বাজারে চালের সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে সরকার বিদেশ থেকে চাল আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ইতিমধ্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে (এনবিআর) আমদানি শুল্ক কমিয়ে ২৫ শতাংশ করার চিঠি দেওয়া হয়েছে। বেসরকারি পর্যায়েও চাল আমদানির অনুমোদন দেওয়া হচ্ছে।

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সরকারি গুদামে চাল মজুত রয়েছে ১২ লাখ ১৫ হাজার টন। একই সময়ে অভ্যন্তরীণ বাজার থেকে চাল সংগ্রহ করেছে ৬ লাখ ১২ হাজার ৩৮২ টন এবং আতপ চাল ৪৯ হাজার ১২৮ টন। আর ধান সংগ্রহ করেছে ২ লাখ ৬৫ হাজার ৩১৩ টন।

বিনিউজবিডি.ডটকম

আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার দৃঢ় প্রত্যয়ে সংবাদ পরিবেশনে দৃঢ় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ নিয়ে “বিনিউজবিডি.ডটকম” বাংলাদেশের প্রতিটি বিভাগ, জেলা, উপজেলা, গ্রামে-গঞ্জে ঘটে যাওয়া দৈনন্দিন ঘটনাবলী যা মানুষের দৃষ্টি ও উপলব্ধিতে নাড়া দেয় এরূপ ঘটনা যেমন, শিক্ষা,স্বাস্থ্য, পরিবেশ, সামাজিক উন্নয়ন, অপরাধ, দুর্ঘটনা ও অন্যান্য যে কোন আলোচিত বিষয়ের দৃষ্টি নন্দন তথ্য চিত্রসহ সংবাদ পাঠিয়ে সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে আত্ম প্রকাশ করুন।

প্রতি মুহুর্তের খবর মুহুর্তেই পাঠকের মাঝে পৌছে দেয়ার লক্ষ্য কাজ করে যাচ্ছে একঝাঁক সাহসী তরুণ সংবাদ কর্মী। এরই ধারাবাহিকতায় স্বল্প সময়ের মধ্যে বাংলাদেশ সহ দেশের বাহিরে বিভিন্ন দেশে সংবাদদাতা নিয়োগ দেয়া হচ্ছে।

বিদেশের মাটিতে অবস্থানরত লেখা-লেখিতে আগ্রহী যে কোনো বাংলাদেশীও প্রবাসী নাগরিক “বিনিউজবিডি.ডটকম” এর সংবাদদাতা/প্রতিনিধি হিসেবে আবেদন করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *