সুযোগ পেলেই ব্যবসা সম্প্রসারণে হাত দেব – bnewsbd.com

স্বাস্থ্য-চিকিৎসা

নিজস্ব প্রতিনিধি, বিনিউজবিডি.ডটকম :

করোনাকালে খাদ্যপণ্যের ব্যবসা কেমন চলছে?  বিনিয়োগ-কর্মসংস্থান পরিস্থিতি কী হবে আগামী দিনে—এসব বিষয়ে আজকের পত্রিকার সঙ্গে কথা বলেছেন মার্কেটিং বিশেষজ্ঞ এবং আকিজ ভেঞ্চারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও সৈয়দ আলমগীর। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন ফারুক মেহেদী

আজকের পত্রিকা: করোনাকালে কেমন চলছে আপনাদের খাদ্যপণ্যের ব্যবসা?

সৈয়দ আলমগীর: আগের চেয়ে এবার ব্যবসা-বাণিজ্য বেশি আক্রান্ত হচ্ছে। দোকানপাট বন্ধ। আমাদের লোকজনও ঠিকমতো যেতে পারছে না। সার্বিক ব্যবসায়ই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, বিশেষ করে এ দুই সপ্তাহ। বাজারে চাহিদা আছে ভালোই। তো, চাহিদা থাকলে কী হবে, সরবরাহ তো নিশ্চিত করা যাচ্ছে না। এটা সাপ্লাইচেইন বা পরিবহনের দিক থেকে সমস্যা না। মূলত দোকানপাট না খুলতে পারার কারণেই ব্যবসাটা ঠিকমতো হচ্ছে না।

আজকের পত্রিকা: সামনে এ খাতের প্রবৃদ্ধি ধরে রাখা সম্ভব হবে কি না?

সৈয়দ আলমগীর: উৎপাদক পর্যায় থেকে আমরা প্রস্তুত আছি। আমাদের ক্রেতারাও প্রস্তুত রয়েছে। ধরেন, আমাদের আকিজের পণ্য হলো জুস, ড্রিংকস, দুধ। এসবের তো চাহিদা আছে। মানুষ এসব পণ্য নেয়। কাজেই সুযোগ পেলেই তারা এসব পণ্য কিনবে। সুতরাং গ্রোথের কোনো সমস্যা নেই।

আজকের পত্রিকা: চলতি বাজেটটি আপনাদের জন্য কতটা ব্যবসা–সহায়ক?

সৈয়দ আলমগীর: সত্যি কথা হলো, এবারের বাজেট ব্যবসাবান্ধব। করোনার মধ্যেও যখন নানা চ্যালেঞ্জ, তার মধ্যেও এমন বাজেট সত্যিই প্রশংসনীয়। এবার আমাদের ওপর থেকে চাপ কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। আড়াই শতাংশ করপোরেট কর কমানো হয়েছে। বিভিন্ন রকমের শুল্ক-কর ও ভ্যাট ছাড় দেওয়া হয়েছে। আমার মনে হয়, ব্যবসার জন্য ভালো হবে এবারের বাজেটটি।

আজকের পত্রিকা: করোনা–উত্তর বিনিয়োগে কি সম্ভাবনা দেখছেন? আপনারা ব্যবসা সম্প্রসারণে যাবেন কি না?

সৈয়দ আলমগীর: করোনা–উত্তর বিনিয়োগে আমি ভালো সম্ভাবনা দেখছি। নিজেদের ব্যবসা আরও সম্প্রসারণের কথা ভাবছি। সুযোগ পেলেই আমরা সম্প্রসারণে হাত দেব। আমরা প্রস্তুত আছি। সরকারের সহায়তা আছে। ব্যাংকঋণের সুদহার কমানো হয়েছে। কর কমানো হয়েছে। অনেক জায়গায় নতুন করে বাড়ানো হয়নি। প্রধানমন্ত্রীর দিক থেকেও সহায়তা আছে। কাজেই সামনে বিনিয়োগ হবে।

আজকের পত্রিকা: অনেকে চাকরি হারিয়েছেন। অনেকের আয় কমেছে। এ জন্য কী করা উচিত?

সৈয়দ আলমগীর: এ ক্ষেত্রে করোনা সংক্রমণই সবচেয়ে বড় বাধা। এতে কারও কিছু করার নেই। আমার যদি ব্যবসা না থাকে তাহলে কত দিন বসিয়ে রেখে বেতন দেওয়া যাবে? এ কারণে হয়তো অনেকের চাকরি চলে গেছে। এখন তো গ্রামগঞ্জেও করোনা বাড়ছে। সামনে যদি কোভিড কমে আসে, তাহলে সব ঠিক হয়ে যাবে। সবাই চাকরিতে ফিরতে পারবে।

আজকের পত্রিকা: করোনা–উত্তর অথনৈতিক প্রবৃদ্ধি ধরে রাখা সম্ভব কি না?

সৈয়দ আলমগীর: আমাদের বিনিয়োগ ভালো হলে প্রবৃদ্ধির ধারা বজায় রাখা যাবে। আমাদের রেমিট্যান্স, রপ্তানি, রিজার্ভ ভালো আছে। সামনে অনেক অর্ডার আসবে। এখন চীন, ভিয়েতনাম, ভারত পারছে না। মিয়ানমারে রাজনৈতিক অস্থিরতায় সেখানের অর্ডার আমরা কিছু পাচ্ছি। সবকিছু স্বাভাবিক হয়ে এলে আমাদের রপ্তানি আরও ভালো হবে।

বিনিউজবিডি.ডটকম

আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার দৃঢ় প্রত্যয়ে সংবাদ পরিবেশনে দৃঢ় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ নিয়ে “বিনিউজবিডি.ডটকম” বাংলাদেশের প্রতিটি বিভাগ, জেলা, উপজেলা, গ্রামে-গঞ্জে ঘটে যাওয়া দৈনন্দিন ঘটনাবলী যা মানুষের দৃষ্টি ও উপলব্ধিতে নাড়া দেয় এরূপ ঘটনা যেমন, শিক্ষা,স্বাস্থ্য, পরিবেশ, সামাজিক উন্নয়ন, অপরাধ, দুর্ঘটনা ও অন্যান্য যে কোন আলোচিত বিষয়ের দৃষ্টি নন্দন তথ্য চিত্রসহ সংবাদ পাঠিয়ে সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে আত্ম প্রকাশ করুন।

প্রতি মুহুর্তের খবর মুহুর্তেই পাঠকের মাঝে পৌছে দেয়ার লক্ষ্য কাজ করে যাচ্ছে একঝাঁক সাহসী তরুণ সংবাদ কর্মী। এরই ধারাবাহিকতায় স্বল্প সময়ের মধ্যে বাংলাদেশ সহ দেশের বাহিরে বিভিন্ন দেশে সংবাদদাতা নিয়োগ দেয়া হচ্ছে।

বিদেশের মাটিতে অবস্থানরত লেখা-লেখিতে আগ্রহী যে কোনো বাংলাদেশীও প্রবাসী নাগরিক “বিনিউজবিডি.ডটকম” এর সংবাদদাতা/প্রতিনিধি হিসেবে আবেদন করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *