বেচা-কেনার জন্য প্রস্তুত রাজধানীয় ২১ পশুর হাট – bnewsbd.com

জাতীয়

নিজস্ব প্রতিনিধি, বিনিউজবিডি.ডটকম :

সাইদুল ইসলাম : করোনা ভাইরাসের মহামারির মধ্যেই ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের দুটি স্থায়ীসহ ২১টি পশুর হাট বসানো হয়েছে। বেচা-কেনার জন্য সব ধরনের প্রস্তুত রয়েছে হাটগুলো। ইতিমধ্যে গরু, মহিষ, ছাগল ও ভেড়ায় ভরে গেছে পশুর হাটগুলো। এছাড়া, প্রতিদিনই বিভিন্ন জেলা থেকে পশু নিয়ে ট্রাক ঢুকছে হাটগুলোতে। এখনও পশুর হাটগুলো না জমলেও কাল রোববার থেকে জমে উঠবে বলে জানিয়েছে হাট কর্তৃপক্ষ। তবে নগরীর হাটগুলোতে এখন ক্রেতারা আসলেও দরদাম যাচাই করে চলে যাচ্ছে। 

দুই সিটি সূত্রে জানা গেছে, পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে রাজধানীতে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোশেনের (ডিএসসিসি) ২০ টি বসেছে। এরমধ্যে বিভিন্ন স্থানে এবার ১০টি জায়গায় অস্থায়ী হাট বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিএসসিসি। হাটগুলোর মধ্যে রয়েছে, হাজারীবাগ এলাকার ইনস্টিটিউট অব লেদার টেকনোলজি মাঠসংলগ্ন উন্মুক্ত এলাকা, পোস্তগোলা শ্মশানঘাটসংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, মেরাদিয়া বাজারসংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, ধোলাইখাল ট্রাক টার্মিনালসংলগ্ন উন্মুক্ত জায়গা, আফতাবনগর (ইস্টার্ন হাউজিং) ব্লক-ই, এফ, জি, এইচ, সেকশন ১ ও ২-এর খালি জায়গা, গোলাপবাগে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মার্কেটের পেছনের খালি জায়গা, উত্তর শাহজাহানপুর খিলগাঁও রেলগেট বাজারের মৈত্রী সংঘের ক্লাবসংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, দনিয়া কলেজসংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, ধূপখোলা ইস্ট অ্যান্ড ক্লাবসংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা এবং লালবাগের রহমতগঞ্জ ক্লাবসংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা। অন্যদিকে, উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) যে ৯টি এলাকায় অস্থায়ী হাট বসানো হচ্ছে, সেগুলো হলো বাড্ডা ইস্টার্ন হাউজিং (আফতাবনগর) ব্লক-ই, সেকশন-৩ এর খালি জায়গা, কাওলা শিয়ালডাঙ্গাসংলগ্ন খালি জায়গা, উত্তরখান মৈনারটেক শহীদ নগর হাউজিং (আবাসিক) প্রকল্পের খালি জায়গা, উত্তরা ১৭ নম্বর সেক্টর এলাকায় অবস্থিত বৃন্দাবন থেকে উত্তর দিকে বিজিএমইএ পর্যন্ত খালি জায়গা, ভাটারা (সাইদনগর) অস্থায়ী পশুর হাট, মোহাম্মদপুরের বছিলায় ৪০ ফুট সড়কসংলগ্ন রাজধানী হাউজিং, স্বপ্নধারা হাউজিং ও বছিলা গার্ডেন সিটির খালি জায়গা এবং ৪৩ নম্বর ওয়ার্ডের আওতাধীন ৩০০ ফুট সড়কসংলগ্ন উত্তর পাশের সালাম স্টিল লিমিটেড ও যমুনা হাউজিং কোম্পানি এবং ব্যক্তিমালিকানাধীন খালি জায়গায় পশুর হাট বসেছে। এসব হাটে ইতিমধ্যে গরু, মহিষ ও ছাগলে ভরে গেছে। এখনও দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পশু আসছে। তবে এবার গরুর দাম একটু বেশি চাচ্ছে বলে এসব হাটে আসা ক্রেতারা জানিয়েছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত কয়েক দিন ধরেই রাজধানীর পশুর হাটগুলোয় চলছে প্রস্তুতির ব্যস্ততা। প্রতিদিনই দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে কোরবানির পশু নিয়ে ট্রাক ঢুকছে হাটগুলোতে। একই অবস্থা রাজধানীর ঐতিহ্যবাহী আফতাব নগর পশুর হাটেও। পাবনা, কুষ্টিয়া, যশোরসহ দেশের বিভিন্ন এলাকার ব্যবসায়ীরা কোরবানির পশু নিয়ে এ হাটে আসছেন। অন্যদিকে হাসিল ঘর ও কন্ট্রোলরুম স্থাপনসহ সার্বিক প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে হাট কর্তৃপক্ষ। এ হাটে ক্রেতারা এসে দরদাম দেখছে। তবে ক্রেতাদের অভিযোগ ছোট কিংবা বড় সব ধরনের গরুর দাম বেশি হাঁকাচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। ক্রেতারা দাম শুনেই ব্যবসায়ীদের দিকে কিছুক্ষণ তাকিয়ে থাকছেন, কেউ সাহস করে দাম বলছেন  আবার অনেকে দাম না বলেই সামনে হাঁটছেন। বড় এই হাটটিতে হাজার হাজার গরু নিয়ে ক্রেতার অপেক্ষায় রয়েছেন ব্যবসায়ীরা। গরুর দাম চড়া কিন্তু ক্রেতা কম, বিক্রিও নেই বললেই চলে। ক্রেতারা বলছেন, গরুর দাম দ্বিগুণ। ক্রেতাদের অভিযোগ, গতবছর যে গরু ৭০-৮০ হাজার টাকায় কেনা-বেচা হয়েছে। এ বছর একই গরুর দাম ১ লাখ ২০ হাজার থেকে ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা চাচ্ছেন বিক্রেতারা। এসব গরুতে মাংস হবে সর্বোচ্চ এক থেকে দেড় মণ। তারা ২ মণ থেকে ৪ মণ মাংসের গরুর দাম হাঁকাচ্ছে ২ লাখ টাকা, ৪ মণে বেশি হলেই ২ লাখ টাকার বেশি দাম হাঁকাচ্ছে। তারা বলছেন, গতবছর ৩ মণ মাংসের গরু বিক্রি হয়েছে ১ লাখ টাকার নিচে। ৫-৬ মণ গুজনের গরু বিক্রি হয়েছে সর্বোচ্চ ২ লাখ টাকায়। কিন্তু এবার দাম চাচ্ছে একেবারে দ্বিগুণ।। ব্যবসায়ীরা বলছেন, এবার দাম একটু বেশি, তবে অত বেশি না। আর দাম কম বা বেশির জন্য আরো দুই একদিন ক্রেতারা অপেক্ষা করে তাদের পছন্দের গরু ক্রয় করবে বলে ক্রেতারা জানিয়েছে।

বিনিউজবিডি.ডটকম

আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার দৃঢ় প্রত্যয়ে সংবাদ পরিবেশনে দৃঢ় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ নিয়ে “বিনিউজবিডি.ডটকম” বাংলাদেশের প্রতিটি বিভাগ, জেলা, উপজেলা, গ্রামে-গঞ্জে ঘটে যাওয়া দৈনন্দিন ঘটনাবলী যা মানুষের দৃষ্টি ও উপলব্ধিতে নাড়া দেয় এরূপ ঘটনা যেমন, শিক্ষা,স্বাস্থ্য, পরিবেশ, সামাজিক উন্নয়ন, অপরাধ, দুর্ঘটনা ও অন্যান্য যে কোন আলোচিত বিষয়ের দৃষ্টি নন্দন তথ্য চিত্রসহ সংবাদ পাঠিয়ে সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে আত্ম প্রকাশ করুন।

প্রতি মুহুর্তের খবর মুহুর্তেই পাঠকের মাঝে পৌছে দেয়ার লক্ষ্য কাজ করে যাচ্ছে একঝাঁক সাহসী তরুণ সংবাদ কর্মী। এরই ধারাবাহিকতায় স্বল্প সময়ের মধ্যে বাংলাদেশ সহ দেশের বাহিরে বিভিন্ন দেশে সংবাদদাতা নিয়োগ দেয়া হচ্ছে।

বিদেশের মাটিতে অবস্থানরত লেখা-লেখিতে আগ্রহী যে কোনো বাংলাদেশীও প্রবাসী নাগরিক “বিনিউজবিডি.ডটকম” এর সংবাদদাতা/প্রতিনিধি হিসেবে আবেদন করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *